টেকনাফে ২ বিজিবির মহতি উদ্যোগে, নিজস্ব অর্থায়নে সড়ক সংস্কার

গিয়াসউদ্দিন ভুলু, টেকনাফ
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

টেকনাফ উপজেলায় দায়িত্বরত সীমান্ত প্রহরী ২ বিজিবি সদস্যরা মাদকপাচার প্রতিরোধ ও সীমান্ত সু-রক্ষা করার পাশাপাশি স্থানীয় জনগনকে দিয়ে যাচ্ছে শীতবস্ত্র বিতরনসহ বিভিন্ন প্রকার সেবামুলক কর্মকান্ড। তারেই ধারাবাহিকতায় টেকনাফ ২ বিজিবি অধিনায়ক লেঃ কর্নেল ফয়সল হাসান খাঁনের নির্দেশনায় বিজিবি সদস্যরা এক মহতি উদ্যোগ হাতে নিয়েছে।
বিজিবি সুত্রে জানাযায়, টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়ক সংলগ্ন টেকনাফ সদর ইউনিয়ন
হাবিবছড়া/ দরগারছড়া এলাকার মেরিন ড্রাইভ সংযোগ সড়কের ব্রীজের উভয় পাশে যাতায়াতের রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় জনগন ও যানবাহন চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছিল। এই দৃর্শ্যটি চোঁখে পড়ার পর ২৭ ফেব্রুয়ারী (বৃহস্পতিবার) টেকনাফ ২ বিজিবির অর্থায়নে বিজিবি সদস্যরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে ক্ষত-বিক্ষত হয়ে পড়ে থাকা সড়কটি সংস্কার করেছে।
এদিকে বিজিবির এই মহতি উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন অত্র এলাকার সুশীল সমাজ ও সাধারন জনগন।
২৭ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) সকালে হাবিরছড়া/দরগারছড়া ব্রীজের উভয় পাশে সড়কটি সংস্কার করে স্থানীয় লোকজনের যাতায়াতসহ যানবাহন চলাচল উপযোগী করে দেয়। সংস্কার কাজ শেষ করার পর সড়কটি পরির্দশন করতে গিয়েছেন টেকনাফ ২ বিজিবি অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান, উপ-অধিনায়ক মোহাম্মদ রুবায়াৎ কবীর ও ভারপ্রাপ্ত কোয়ার্টার মাষ্টার মোহাম্মদ নুরুল হুদা।
পরিদর্শন শেষে অধিনায়ক লে. কর্ণেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এই সড়কটি যানবাহন চলাচল ও যাতায়াতে অনুপযোগী হয়ে পড়ে থাকায় স্থানীয় জনগনকে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছিল। অবশেষে বিজিবির নিজস্ব অর্থায়নে আমরা এই সামাজিক উদ্যোগটি বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হয়েছি।
তিনি আরো বলেন মাদক পাচার প্রতিরোধ ও সীমান্ত সু-রক্ষার পাশাপাশি বিজিবি সদস্যরা স্থানীয় জনগনকে দুর্ভোগ থেকে বাঁচাতে এই সেবামুলক কর্মকান্ড অব্যাহত রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাবে।

সংবাদটি আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ :

কক্সবাজারে মরণব্যাধি করোনা ভাইরাসের কারনে বাজারে হঠাৎ করেই হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সঙ্কট দেখা দিয়েছে। ফলে মানবিক বিবেচনায় নিজেদের টাকায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরীর পর তা সাধারণ জনগনের মাঝে বিনামূল্যে বিতরণ করে বিরল দৃষ্টান্ত দেখিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক ও ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ছাত্রলীগের সভাপতি মইন উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল ছাত্রলীগ কর্মীর এমন মহতি উদ্যোগ সবার মাঝে প্রশংসা কুড়িয়েছে।
এর আগে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা তৈরী সরূপ হাতকে জীবাণুমুক্ত রাখতে সারাদেশে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরী এবং বিতরণের নির্দেশ দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। এরপর নিজেদের তত্বাবধানে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির কাজ শুরু করে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।
রোববার বিকেল থেকে কক্সবাজারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির কাজে নামে ছাত্রলীগ। তারা ১ম ধাপে তিন শ’ বোতল স্যানিটাইজার তৈরি করে। পরবর্তীতে ছোট বড় আরো ২শ’ বোতল স্যানিটাইজার বানানো হয়। পর্যায়ক্রমে প্রয়োজন সাপেক্ষে আরো ৫শ’ স্যানিটাইজার এবং মাস্ক বানিয়ে সম্পন্ন মানবিক বিবেচনায় তা সাধারণ মানুষের মাঝে বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতা মইন। সমসাময়িক সঙ্কটময় মুহুর্তে ব্যতিক্রমী এমন মহৎ কাজের অন্যতম প্রধান উদ্যোক্তা জেলা ছাত্রলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক ও ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ছাত্রলীগের সভাপতি মইন উদ্দীন জানায়, ফার্মাসির কয়েকজন শিক্ষার্থীর সহযোগিতায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির উদ্যোগ নেন তারা। নিজেদের তৈরিকৃত এসব স্যানিটাইজার বিনামূল্যে সাধারণ মানুষের মাঝে বিতরণ করছেন। সবগুলো স্যানিটাইজার স্বাস্থ্যসম্মতভাবে তৈরী হচ্ছে বলেও জানান মইন উদ্দিন। এদিকে প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস নিয়ে দেশের এই সংকটময় মুহুর্তে একজন ছাত্রলীগ নেতার এমন উদারতা শুধু কক্সবাজার নয়, সারাদেশের ছাত্র রাজনীতির ইতিহাসে অনন্য উচ্চতার মাইল ফলক হয়ে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন এখানকার রাজনৈতিক বোদ্ধারা।

মানবতার ফেরিওয়ালা ছাত্রলীগ নেতা মইন