সেন্টমার্টিনের কাছে ট্রলার ডুবিতে এখনো নিখোঁজ ৫০ রোহিঙ্গা

কক্সটিভি প্রতিবেদক♦
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

ক্সবাজারের টেকনাফের সেন্টমার্টিনের নিকটবর্তী সাগরে রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার ডুবির ঘটনায় নিহত ১৫ জনের মধ্যে নয়জনের মৃতদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে অপর ছয়জনের পরিচয় শনাক্ত না হওয়ায় লাশগুলো হাসপাতালের মর্গে রয়েছে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে ট্রলার ডুবির ঘটনায় ১৩৮ জনের মধ্যে অন্তত ৫০ জন এখনো নিখোঁজ রয়েছে। তাদের উদ্ধারে কোস্টগার্ড ও স্থানীয় জেলেরা সাগরে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে।

টেকনাফ থানার পরিদর্শক (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার সকালে পরিচয় শনাক্ত হওয়া ৯ জন রোহিঙ্গার লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

তবে অপর ৬ জনের পরিচয় শনাক্ত না হওয়ায় লাশগুলো কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে বলে জানান ওসি।




মঙ্গলবার ভোর রাতে টেকনাফের সেন্টমার্টিনের নিকটবর্তী সাগরে মালয়েশিয়াগামী ১৩৮ জন রোহিঙ্গা বোঝাই একটি ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে। এতে কোস্টগার্ডসহ নৌ-বাহিনী ও স্থানীয় জেলেদের সহায়তায় ১৫ জনের মৃতদেহ এবং জীবিত অবস্থায় ৭২ জনকে উদ্ধার করা হয়। পরে বুধবার ভোর রাতে সেন্টমমার্টিনের নিকটবর্তী সাগর থেকে মুর্মূষাবস্থায় আরো ১ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করে কোস্টগার্ড।

প্রদীপ বলেন, টেকনাফের সেন্টমার্টিনে সাগরে ট্রলার ডুবির ঘটনায় মৃত উদ্ধার হওয়া ১৫ জনের লাশ বুধবার কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। পরে নিহতদের স্বজনরা এদের মধ্যে ৯ জনের পরিচয় শনাক্ত করেছে। পরিচয় শনাক্ত না হওয়া অন্যদের লাশ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

‘লাশের পরিচয় শনাক্ত হওয়া ৯ জন রোহিঙ্গা উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন ক্যাম্পের বাসিন্দা।’

ওসি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সকালে পরিচয় শনাক্ত হওয়া জনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এসব লাশ হাসপাতাল মর্গ থেকে নেয়ার পর স্ব স্ব ক্যাম্পের কবরস্থানে দাফনের ব্যবস্থা নিয়েছে স্বজনরা।’

তবে অপর ৬ জনের পরিচয় শনাক্ত করা সম্ভব না হলে কক্সবাজার পৌরসভার তত্ত্বাবধানে বেওয়ারিশ হিসেবে দাফনের ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান প্রদীপ।




এদিকে কোস্টগার্ডের সেন্টমার্টিন স্টেশনের ইনচার্জ লেফটেন্যান্ট নাঈম-উল হক জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবারও ট্রলার ডুবির ঘটনায় নিখোঁজদের সন্ধানে সাগরে তল্লাশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

নাঈম-উল বলেন, সেন্টমার্টিনের নিকটবর্তী সাগরে ট্রলার ডুবির ঘটনায় ১৩৮ জনের মধ্যে এখনো অন্তত ৫০ জন নিখোঁজ রয়েছে। তাদের সন্ধানে সাগরে কোস্টগার্ডের নিয়মিত টহলদলের পাশাপাশি অতিরিক্ত টহলদল জোরদার করা হয়েছে। এছাড়া কোস্টগার্ড সদস্যদের পাশাপাশি স্থানীয় জেলেদেরও নিখোঁজদের সন্ধানে সহায়তা চাওয়া হয়েছে।

সংবাদটি আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ :