এবার আকাশ থেকে রোহিঙ্গা

আবূুল কুদ্দুস রানা
  • প্রকাশিত সময় : সোমবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

এতদিন মিয়ানমার থেকে সমুদ্রপথে বাংলাদেশে নেমেছিল রোহিঙ্গা ঢল। এবার আকাশপথেই বাংলাদেশে আসবে রোহিঙ্গারা।
বিশ্বাস হচ্ছেনা ?

সৌদি আরবে রোহিঙ্গা আছে প্রায় ৫ লাখ। এরমধ্যে বাংলাদেশি পাসপোর্ট বানিয়ে (বাংলাদেশি হয়ে) সেখানে বসতি করছেন ৪২ হাজার রোহিঙ্গা। সৌদি আরবের মক্কা ও জিদ্দা শহরে বসতি তাদের। তো বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী ৪২ হাজার রোহিঙ্গাকে ফেরৎ আনার জন্য বাংলাদেশ সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে সৌদি সরকার।
সৌদি আরবের বক্তব্য হলো-যেহেতু বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে আকাশপথে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরব এসেছে; সেহেতু তাদের (রোহিঙ্গাদের) আকাশপথেই বাংলাদেশে ফেরৎ নিতে হবে।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেদেশের সেনাবাহিনী কর্তৃক রোহিঙ্গা নিপীড়নের খবর সবার জানা। সর্বশেষ ২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর রাখাইন রাজ্য থেকে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আশ্রয় নিয়েছে আট লাখ রোহিঙ্গা। আগে এসেছে আরও কয়েক লাখ। বর্তমানে উখিয়া ও টেকনাফের ৩৪টি আশ্রয়শিবিরে নিবন্ধিত রোহিঙ্গার সংখ্যা সাড়ে ১১ লাখ। কক্সবাজার জেলার জনসংখ্যা প্রায় ২৬ লাখ। কক্সবাজারবাসীর জন্য ১১ লাখ রোহিঙ্গা এখন বড় বোঝা। অনেকের ভাষায় রোহিঙ্গারা স্থানীয়দের কাছে ‘বিষফোড়া’ পরিণত হয়েছে।

তবুও বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাকে মানবিক আশ্রয় দিয়ে বিশ্বব্যাপী প্রশংসা অর্জন করে বাংলাদেশ। কিন্তু এ অর্জন কতদিন ধরে রাখবে বাংলাদেশ ? আর কত মানবিকতা দেখাবে বাংলাদেশ ?
এখন সৌদি আরব থেকেও যদি দলে দলে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়-অবস্থা কী দাঁড়াবে ?

বাংলাদেশের ব্যবস্থার ফাঁক গলে (অবৈধপন্থায় পাসপোর্ট বানিয়ে) রোহিঙ্গারা সৌদি আরব গেছে বলে তাদেরকে বাংলাদেশের নিতে হবে, এর কোনো যৌক্তিকতা নেই। সৌদি আরবের দাবি মেনে নিলে তারপর সামনে দাড়াবে মালয়েশিয়া, ভারতসহ বিভিন্ন দেশ। তারাও বলবে আরও রোহিঙ্গা সামলাও। তখন পুরো দেশটাই রোহিঙ্গা রাজ্যে পরিণত হবে।

এখন উপায়…?

সংবাদটি আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ :